মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

কী সেবা কীভাবে পাবেন

 

কার্যক্রমঃ

·      খাদ্যশস্যের বাজারদর পর্যবেক্ষণ ও উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিতকরণ।

·        সরকারী নীতিমালা অনুযায়ী কৃষকের কাছ থেকে সরাসরি ধান,গম ও মিলারের কাছ থেকে চাল ক্রয় এবং  মুল্য পরিশোধ।

·        খাদ্যশস্যের বাজারদর স্থিতিশীল রাখার লক্ষ্যে ওএমএস/ফেয়ার প্রাইস কর্মসূচীর মাধ্যমে দরিদ্র জনগোষ্ঠির মাঝে চাল/গম বিক্রয়।

·        বিভিন্ন ধরনের জরুরী ও অতি জরুরী গ্রাহকের নিকট খাদ্যশস্য বিক্রয়/বিতরণ।

·      কাবিখা, টি.আর, জি.আর, ভিজিডি, ভিজিএফ ইত্যাদি কর্মসূচীতে খাদ্যশস্য বিতরনের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুকূলে ডিও ইস্যু ও খাদ্যশস্য সরবরাহ।

·      আটাচাক্কি ও খাদ্যশস্যের খুচরা ব্যবসায়ীকে লাইসেন্স প্রদান ও নবায়ন এবং তাদের কার্যকলাপ পর্যবেক্ষণ।

·        কৃষকের কাছ থেকে ক্রয় করা ধান থেকে স্থানীয় মিলারদের মাধ্যমে চাল উৎপাদন ।

·        গুদামে সংরক্ষিত খাদ্যশস্যের মান নিয়ন্ত্রণ ও নিরাপত্তা বিধান ।

·        বিভিন্ন চ্যানেলে বিক্রয়/সরবরাহকৃত খাদ্যশস্য ও মূল্যের হিসাব উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট প্রেরণ।

·        বরাদ্দকৃত খাদ্যসামগ্রীর মূল্য চালানের মাধ্যমে আদায় নিশ্চিতকরণ ।

·        ডিলার কর্তৃক ফেয়ার প্রাইস কার্ড বা মাষ্টাররোলের মাধ্যমে খাদ্যসামগ্রী বিক্রয় তদারকী ও নিশ্চিতকরণ

·     স্থানীয় গুদামে সংগৃহিত খাদ্যশস্য প্রয়োজনবোধে অন্যত্র স্থানামত্মরের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জ্ঞাত   করান এবং প্রচেষ্টা চালান।

·     গুদামে মজুদের পরিমান লক্ষ্য রাখা এবং প্রয়োজনে মজুদ বৃদ্ধির জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে সময়মত জানানো এবং ব্যবস্থা গ্রহণ।

·     বিভিন্ন ধরনের রিপোর্ট-রিটার্ণ দৈনিক, সাপ্তাহিক, পাক্ষিক ও মাসিক ভিত্তিতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকের নিকট প্রেরণ।

·        এছাড়াও সময় সময় বিভাগীয় ও উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক প্রদত্ত জরুরী দায়িত্ব পালন।

 

সেবার ধরন

সেবা

সেবা প্রদান/ প্রাপ্তির ক্ষেত্রে অসুবিধাসমুহ

নাগরিক পর্যায়ে

সরকারী পর্যায়ে(চ্যালেঞ্জ)

খাদ্যশস্য বিক্রয়/ বিতরন

১।ওএমএস

·     খাদ্যশস্য ক্রয়ের জন্য দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়ানো।

·     ডিলার কর্তৃক ওজনে কম দেয়া।

·     কখনও কখনও খাদ্যশস্যের গুণগতমান খারাপ থাকে।

·    ডিলার নিয়োগে সময়   স্বল্পতাও  জটিলতা।

·    বিভাগীয় জনবলের স্বল্পতাহেতু বিতরণ কাজের তদারকিতে সীমাবদ্ধতা।

২।ফেয়ার প্রাইস                (ইউনিয়ন পর্যায়েহতদরিদ্র)

·     ডিলারের দোকানের দূরত্ত্ব বেশী হওয়া, দৃশ্যমান জায়গায় না থাকা ।

·     ডিলার কর্তৃক ওজনে কম দেয়া।

·     কখনও কখনও খাদ্যশস্যের গুণগতমান খারাপ  থাকে।

·     ডিলার কর্তৃক প্রকৃত উপকারভোগীকে খাদ্যশস্য প্রদান না করে কালোবাজারে  বিক্রয়।

·     ডিলার নিয়োগ ও উপকারভোগীর তালিকা প্রনয়নে সময় স্বল্পতা ও রাজনৈ্তিক প্রভাব।

·     বিভাগীয় জনবলের স্বল্পতাহেতু বিতরণ কাজের তদারকিতে সীমাবদ্ধতা।

·     তদারক কাজে ইউনিয়ন গুলোতে যাতায়াতে সমস্যা।

৩।ফেয়ার প্রাইস                (শহর এলাকায় কার্ডের মাধ্যমে)

·      ডিলারের দোকানের দুরত্ত্ব বেশী হওয়া, দৃশ্যমান জায়গায় না থাকা ।

·     ডিলার কর্তৃক ওজনে কম দেয়া।

·     কখনও কখনও খাদ্যশস্যের গুণগতমান খারাপ থাকে।

·     ডিলার কর্তৃক প্রকৃত কার্ডধারীকে খাদ্যশস্য প্রদান না করে কালোবাজারে  বিক্রয়।

·     ডিলার নিয়োগ, কার্ড প্রদানে সময় স্বল্পতা ও রাজনৈ্তিক প্রভাব।

·     জনবলের স্বল্পতাহেতু বিতরণ কাজের তদারকিতে সীমাবদ্ধতা।

 

৪।ফেয়ার প্রাইস                (৪র্থ শ্রেণীর সরকারী কর্মচারী)

·      ডিলারের দোকান সব সময় খোলা না থাকা ।

·      ডিলার কর্তৃক ওজনে কম দেয়া।

·      কখনও কখনও খাদ্যশস্যের গুণগতমান খারাপ থাকে

·      ডিলার নিয়োগ, ্কার্ড প্রদানে সময় স্বল্পতাও জটিলতা

·      জনবলের স্বল্পতাহেতু বিতরণ কাজের তদারকিতে সীমাবদ্ধতা।

 

খাদ্যশস্য সংগ্রহ

১।কৃষকের নিকট থেকে ধান/গম ক্রয়

·     কৃষকগণ খাদ্যশস্য সংগ্রহের সময় কাল ও সংগ্রহ  মুল্য তাৎক্ষনিক ভাবে জানতে  না পারা।

·     সরকারী বিনির্দেশ মতে খাদ্যশস্যের গুণগতমান কেমন হওয়া দরকার তা না জানা।

·     অনেক ক্ষেত্রেই খাদ্যশস্যের গুনগত মান সরকারী বিনির্দেশমত থাকে না।

·     রাজনৈতিক চাপের কারণে অনেক ক্ষেত্রেই নিম্নমানের(বিনির্দেশ বহির্ভু্ত)  খাদ্যশস্য ক্রয় করতে হয়।

২।মিলারের কাছ থেকে চাল ক্রয়

·       মিলারগণ খাদ্যশস্য সংগ্রহের সময় কাল ও সংগ্রহ  মুল্য তাৎক্ষনিক ভাবে জানতে না পারা।

·       জেলা অফিসে গিয়ে চুক্তি করা।

·       সংগ্রহ কমিটি কর্তৃক  বিভাজনকৃত চালের বরাদ্দ একসংগে না পাওয়া।

·     অনেক ক্ষেত্রেই খাদ্যশস্যের গুনগত মান সরকারী বিনির্দেশমত  থাকে না।

·     রাজনৈতিক চাপের কারণে অনেক ক্ষেত্রেই নিম্নমানের(বিনির্দেশ বহির্ভু্ত)  খাদ্যশস্য ক্রয় করতে হয়।

অন্যান্য

১।আটাচাক্কি ও খুচরা  ব্যবসায়ীকে লাইসেন্স প্রদান

ব্যবসায়ীগণ তাৎক্ষণিকভাবে লাইসেন্স না পাওয়া।

·      ব্যবসায়ী কতৃক আবেদনের সাথে পুর্ণাঙ্গ তথ্য প্রদান না করা।

·      ব্যবসায়ীগণ যথাসময়ে লাইসেন্স গ্রহণ না করা এবং লাইসেন্সের শর্তাবলী অনুসরন না করা।


Share with :

Facebook Twitter